আকরাম খানের পদত্যাগ

 

যার একটি মাত্র ইনিংসের উপর দাড়িয়ে আছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের ভিত্তি- তিনি আকরাম খান। ৯৯ এর বিশ্বকাপের আগে হল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলা তার ৬৮ রানের ইনিংসটি বাংলদেশকে নিয়ে গেছে বিশ্বকাপে। তারপরই তো বাংলাদেশ পাকিস্তানকে হারিয়ে গড়লো সারা জীবন স্মৃতিচারণ করার মতো ইতিহাস। আর সে ইতিহাস-গড়া কীর্তির জোড়েই বাংলাদেশ দাবী করে বসলো- টেস্ট স্টাটাস। পেয়ে গেলো…

প্রিয় মুখটা..

 

 

এর সবই তো কেবল সেই ৬৮ এর ফলে। সেই ৬৮ এর নায়ক আকরাম খানই আসলে বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রথম তারকা।

বিসিবি সাবেক এই অধিনায়ককে বসিয়েছিলো প্রধান নির্বাচকের আসনে। কিন্তু… কী অবহেলা-ই না করা হলো পরে। বিসিবি প্রেসিডেন্ট আ হ ম মোস্তফা কামালের মনগড়া আচরণের কাছে পরাজিত হতে হলো আকরাম খানকে। যা তাঁর তো বটেই পুরো জাতির জন্য লজ্জাজনক। সারা পৃথিবীতেই দল নির্বাচনের পুরো ভার থাকে নির্বাচকদের উপর। যাতে কিছু মতামত থাকে অধিনায়কেরও। কিন্তু পরিস্থিতি ভিন্ন আমাদের দেশে। এখানে নির্বাচকদের বানানো দলে ঘষামাজা করে তথাকথিত টেকনিক্যাল কমিটি-প্রেসিডেন্ট…

যা হোক, অনুষ্টিতব্য এশিয়া কাপের জন্য নির্বাচকদের নির্ধারিত দলে বিসিবি প্রেসিডেন্টের হস্তক্ষেপ পছন্দ হয়নি আকরাম খানের। রাগ আর ক্ষোভে তিনি পদত্যাগপত্র জমা দিয়ে দিলেন। বোর্ডের দায়িত্বে থাকা বর্তমান কোনো কর্মকর্তা তাকে সিদ্ধান্ত বদলের অনুরোধ করেছিলেন কিনা, তাও জানা যায়নি।